জ্যাকুইনিয়া

@
0
(0)

শিবপুরের বোটানিক্যাল গার্ডেনে ঝোপের মতো এই গাছটির নাম জ্যাকুইনিয়া রাশিফোলিয়া (Jacquinia ruscifolia) বা শুধুই জ্যাকুইনিয়া।
এর বৈজ্ঞানিক নাম Jacquinia macrocarpa.

গাছটির জন্মভূমি মেক্সিকোয়।
জ্যাকুইনিয়ার অগ্র মুকুলে থোকা থোকা ছোট ছোট লাল বা কমলা ফুল ফোটে। গাছ ভরে ফুল ফুটলে ভারী সুন্দর লাগে।

কিন্তু গাছটি ভয়ঙ্কর বিপদজনক। এর প্ৰতিটি পাতার আগায় বিষাক্ত কাঁটা থাকে। ফুল তুলতে গেলে সে কাঁটা গায়ে বিঁধবেই। এবং সেটুকু অংশ মুট করে ভেঙে শরীরে থেকে যাবে।
ছোট চিমটি বা ফাঁপা চাবি দিয়ে যেমন করে মৌমাছির হুল বার করতে হয়, তেমনি করে কাঁটা বার না করা পর্যন্ত জ্বালা করবে, যন্ত্রনা হবে।
তাই গাছের শোভা দূর থেকেই দেখা ভালো। ওই কাঁটা আসলে পাতার মধ্য শিরারই এক্সটেনশন.
জ্যাকুইনিয়ার পাতাগুলি আমাদের ছাতিমের পাতার মতো সজ্জিত। কোনো একটি শাখা উপর থেকে দেখলে মনে হয় পাতাগুলি ডালের গায়ে পাক খেয়ে উঠেছে। বোটানিতে একে বলা হয় helically alternate.
ফুলটি দেখলে মনে হয় এর বুঝি দশটি পাপড়ি। কিন্তু তা নয়, বড় গুলি পাঁচটি পাপড়ি ও ছোট গুলি পাঁচটি পুংদন্ড। সেই পুংদণ্ডের নাম স্ট্যামিনোডিয়া।
ফুলের কেন্দ্রে আছে পাঁচটি ছোট বৃন্তের মাথায় পাঁচটি পরাগধানী।
জ্যাকুইনিয়ার বৃতি খালি চোখে।প্রায় খুঁজেই পাওয়া যায় না, এত ছোট।

মধ্য যুগের এক অস্ট্রিয়ান বোটানিস্ট Nicolaus Joseph Jacquin এর নাম অনুসারে গাছটির নামকরণ করা হয় জ্যাকুইনিয়া।

ফাল্গুনী মজুমদার

লেখাটিকে কতগুলি ট্রফি দেবেন ?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  

Leave a Reply

Next Post

ভ্যারেন্ডা ফুল

0 (0) কলকাতায় আলিপুরের এগ্রি-হর্টিকালচারে এটি একটি বোতল ভ্যারেন্ডার গাছ, ও তার ফুল ও ফল। গাছটির ইংরাজি নাম : Buddha Belly Plant. বৈজ্ঞানিক নাম : Jatropha podagrica. গাছটি দেখলে আমার এক এক সময়ে এক এক রকম মনে হয়। কখনো মনে হয় উর্ধবাহু হয়ে মানুষের মিছিল চলেছে। কখনও মনে হয় ট্রাইপড় […]
error: কপি নয় সৃষ্টি করুন
%d bloggers like this: