কাছে দূরে অচিনপুরে(ভ্রমণ গাইড)

5
(1)

টংলু

কাছে দূরে অচিনপুরে(ভ্রমণ গাইড)
নামটা অচেনা তাে নয়ই, জায়গাটাও কমবেশি বহু মানুষের চেনা। বিশেষ করে পাহাড়প্রেমী সান্দাকফু-ফালুট পথগামী ট্রেকারদের। সুতরাং মনে হতেই পারে এ নিয়ে লেখা বা পড়ার কি প্রয়ােজন। প্রয়ােজন আছে বৈকি! কাঞ্চনজঙ্ঘায় সূর্যোদয় বলতে যারা বােঝেন শুধুই টাইগার হিল বা সান্দাকফুর শীর্ষদেশে চড়ার মতাে শারীরিক ধকল নিতে যারা অক্ষম তাদের জন্য আদর্শ স্থান টংলু। চোখের সামনে দিবারাত্র উদ্ভাসিত ঝলমলে কাঞ্চনজঙ্ঘা, তার একপাশে কুম্ভকর্ণ অন্যপাশে শিম্ভো আর কাবরুডােম। যেন চিরনিদ্রিত বুদ্ধ। নেপালিদের কাছে অতি পবিত্র স্লিপিং বুদ্ধা। একেবারে নিভৃতে নির্জনে বরফঢাকা কাঞ্চনজঙঘাকে বাকরুদ্ধ হয়ে উপভােগ করার এমন পাহাড়ি জায়গা সমগ্র দার্জিলিং-এ বােধহয় খুব কম আছে। টংলু ট্রেকার্স হাটের সামনে আছে ছােট্ট একটি পােখরী। হু-হু ঠাণ্ডা বাতাস আলপনা আঁকে তার কাচ স্বচ্ছ জলে আপন খেয়ালে। পাখিদের মধ্যে আছে কালিজ ফেজেন্ট, স্কারলেট মিনিভেট, শ্যাটায়ার ট্রাগােপান, ব্ল্যাক ফিজ্যান্ট প্রভৃতি।
পেতে পারেন লেপার্ড ক্যাট, প্যাঙ্গোলিনের মতাে প্রাণীদের দেখাও।
টংলু সংলগ্ন উপত্যকায় আছে ৬০০ বেশি প্রজাতির অর্কিড, আছে প্রচুর ভেষজ উদ্ভিদ। এতাে গেল দিনমান, টংলুর রাত আরও মায়াবি, মােহময়ী। আর চাদনি রাত হলে একেবারে ষােলকলাপূর্ণ। মনে হবে ঝিকিমিকি রাতজাগা তারা নক্ষত্র দল বেঁধে নেমে আসছে নিচে আর ৯,৯৫০ ফুট উচ্চতা থেকে দেখা বিশাল চাদ যেন খলখলিয়ে হাসছে আপনার দিকে তাকিয়ে। তার রূপালী রঙ গায়ে মেখে দাঁড়িয়ে আছে হা-হা উন্মুক্ত কাঞ্চনজঙ্ঘা আপনার হাতের মুঠোয়, বিস্ফারিত দুই চোখের সামনে।
কাছে দূরে অচিনপুরে(ভ্রমণ গাইড)
যাতায়াত :
নিউ জলপাইগুড়ি থেকে গাড়িতে মানেভঞ্চন বা আরও এগিয়ে চিত্রে। ভাড়া ২৫০০-৩০০০ টাকা। ঐ স্থান থেকে পায়ে হেঁটে মেঘমা হয়ে তুমলিঙ। তুমলিঙ থেকে ডানদিকে খাড়া ২ কিলােমিটার পদব্রজে। ব্যস তাহলেই পৌছে যাবেন মেঘের রাজ্যে, কুয়াশার রাজ্যে, সৌন্দর্যের খনিতে। সম্পূর্ণ পথটি ল্যান্ডরােভারেও
আসতে পারেন।
থাকা-খাওয়া :
জিটিএ ট্রেকার্স হাট, চারশয্যা ৫০০-৭০০টাকা , ডর্মেটারি ১৫০-২০০ টাকা শয্যা প্রতি। খাওয়া খরচ প্রায় ৩০০ -৩৫০ টাকা জন প্রতি/ প্রতিদিন। শুকনাে খাবার অবশ্যই সঙ্গে রাখুন, জল কিনে খাবেন। দু-চার ঘর বসতি আছে। ঘরের জন্য বা পেটপুজো কথা বলতে পারেন, ঠকবেন না নিশ্চিতভাবেই বলা যায়।
লেখক – প্রবীর বসু

লেখাটিকে কতগুলি ট্রফি দেবেন ?

Click on a star to rate it!

Average rating 5 / 5. Vote count: 1

No votes so far! Be the first to rate this post.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  

Leave a Reply

Next Post

কাছে দূরে অচিনপুরে(ভ্রমণ গাইড)

5 (1) ঝান্ডি/ঝান্ডিদারা। মেঘ আর পাহাড় এখানে মিলেমিশে একাকার। তবে এ মেঘ শিলংয়ের মতাে জলভরা নয়। ক্ষণে ক্ষণে বৃষ্টিও নামায় না, বরং শক্তি চাটুজ্জ্যের গাভীর মতাে চরে বেড়ায়। মালবাজার থেকে ৩০-৩২ কিলােমিটার দূরে ৬০০০ ফিট উচ্চতায় গরুবাথান ব্লকের আপার লুংসেল গ্রামে ঝান্ডি ইকো হাউস। যাবার রাস্তাটিও অনবদ্য। ঘন সবুজের বুক […]
error: কপি নয় সৃষ্টি করুন
%d bloggers like this: