বিচিত্রপুর

3.5
(2)
কাছে দূরে অচিনপুরে (ভ্রমন গাইড)
একটু অচেনা, বিচিত্র নামের এ জায়গাটি কিন্তু খুব চেনা দীঘার কাছে। যদিও তা তালসারি, চন্দনেশ্বর শিবমন্দির পেরিয়ে ঢুকে পড়েছে প্রতিবেশী রাজ্য তাড়শায়। শিব মন্দির থেকে ১৮-২০ কিলােমিটার দুরেই বিচিত্রপুর। কংক্রিটের আঁকাবাঁকা রাস্তার দুধারে আছে সুদৃশ্য পানের বরােজ ,মাঝে মাঝে জলা,কাঁচ বাড়ি, বালিমাটিতে কাজু গাছ দেখতে দেখতে চলে আসুন একেবারেম্যানগ্রোভ বনাঞ্চলের সম্মুখে। একটি উপকূলবর্তী প্রান্তিক গ্রাম। বাসিন্দারা সকলেই মৎস্যজীবী। ওড়িশা ফরেস্ট ডিপার্টমেন্টের অধীন বিচিত্রপুর ইকো ট্যুরিজম অফিস থেকে টিকিট নিয়ে জেটিঘাট থেকে চেপে পড়তে হবে স্পীড বােটে, যা সরু খাল বিল পেরিয়ে আপনাকে পৌছে দেবে প্রায় সমুদ্রে মিনিট ১৫-২০ বাদে। নামতে হবে ভারি সুন্দর চারদিক জলবেষ্টিত একটি দ্বীপে। যেটি বিচিত্রপুর। সারাদিনে ৬-৭ ঘণ্টার মতাে এ দ্বীপ জেগে থাকে জলের ওপরে। অদূরেই মােহন, সুবর্ণরেখা। এসে মিশেছে বঙ্গোপসাগরের বুকে। বিস্তীর্ণ বালুরাশির ওপর দিগন্ত জুড়ে শুধু ঝাউবন আর ম্যানগ্রোভ জঙ্গল অন্যপাশে। মাথা উঁচু করে তাদের অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে লােনা জলের সঙ্গে লড়াই করা শ্বাসমূল। রয়েছে সুন্দরবনের পরিচিত সুন্দরী, গরান, কেওড়া, গেওয়াগাছেরাও। বালিতে উজ্জ্বল উপস্থিতি লাল কাকড়াদের, কাদামাটিতে লাফাচ্ছে মাডস্কিপার, হর্সক্রাব, জলে পা ডুবিয়ে খাদ্যের সন্ধানরত বকেদের দল। দেখবেন নানা প্রজাতির পাখি, সরীসৃপ, ঝিনুক। নভেম্বর-জানুয়ারিতে ডিম পাড়তে আসে অলিভ রিডলে কচ্ছপ, আসে অসংখ্য পরিযায়ী পাখি। ওড়িশা সরকারের দক্ষ পরিচালনায় এবং পেশাদারি ব্যবস্থাপনায় বিচিত্রপুর দ্রুত উঠে আসছে। প্রকৃতিপ্রেমী বা পক্ষিপ্রেমীদের পছন্দের তালিকায়। বিপুল জীববৈচিত্র্যের ভাণ্ডার। এই বিচিত্রপুর। আপনার স্পীডবােট এবার ছুটবে ওই সুনীল জলধিতরঙ্গের দিকে। বিচিত্ৰপুরের তটভূমি ছেড়ে বােট যত এগােবে বাড়বে স্রোত, জলের গভীরতা। দুলে উঠবে নৌযান, জলের ঝাপটা লাগবে গায়ে। ভয়ার্ত চোখে দেখবেন সামনেই উত্তাল ফেনায়িত সমুদ্র! বােট আর না এগিয়ে ঢুকে পড়বে পাশের খাড়ি এলাকায়। সেগুলি স্নেক রিহেবিটেশন স্পট হিসাবে পরিচিত। ইতিমধ্যে ভাটার ডাক আসায় আবার ফিরে যেতে হবে সেই ফেলে আসা জেটিঘাটের দিকে। এক অদ্ভুত প্রাকৃতিক নিয়া নিস্তব্ধতায়, এক অনাবিল প্রসন্নতায় কোথা দিয়ে যে দু-ঘন্টা কাটবে তা টেরই। পাবেন না
            bi1
যাতায়াত : ট্রেনে। বাসে নিউ দীঘা এবং সেখান থেকে বিচিত্রপুর। ভাড়া ১২০০ -১৫০০ টাকা। ওই ভাড়ায় আপনাকে দেখাবে বিচিত্ৰপুর ছাড়াও। তালসারি, চন্দনেশ্বর ও ভূষণ্ডেশ্বর শিব মন্দির। গাড়ির জন্য যোগাযােগ করুন অশােক মাইতি, ফোন – ৯৭৩৪৬২৮৯০৭, নিউ দীঘা। বিচিত্রপুর থেকে ৮ জনের স্পীড বােটের ভাড়া ১২০০-১৫০০ টাকা, দু’ঘণ্টার বেশি সময় কোনােভাবেই বরাদ্দ নয়।
      bi2
থাকা-খাওয়া : অবশ্যই শুকনাে খাবার ও জলের বােতল রাখুন। বিচিত্রপূরে থাকার কোনো জায়গা নেই। বিশদ জানতেঃ রিসোর্স ম্যানেজার।
প্রবীর বসু
probir bosu.jpg

লেখাটিকে কতগুলি ট্রফি দেবেন ?

Click on a star to rate it!

Average rating 3.5 / 5. Vote count: 2

No votes so far! Be the first to rate this post.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  

Leave a Reply

Next Post

এই দশকের প্রথম চন্দ্র গ্রহণ

3.5 (2)   আগামি ১0ই জানুয়ারি এই দশকের প্রথম চন্দ্রগ্রহণ হতে চলেছে।যা নিয়ে আকাশপ্রেমী মানুষের আগ্রহ চরম। রাতের আকাশে চাঁদকে ভাল লাগে না এমন মানুষ খুব কমই পাওয়া যাবে। আর সেই চাঁদ যদি পূর্ণিমার চাঁদ হয় তাহলে তো কোন কথাই নেই, পূর্ণিমার চাঁদের দিকে তাকিয়ে মনে যে অনাবিল আনন্দের উদ্রেক […]
error: কপি নয় সৃষ্টি করুন
%d bloggers like this: