নতুন পৃথিবী

@
5
(1)

এই মহাবিশ্বে আমরা কী নিঃসঙ্গ ? প্রশ্নটা বিজ্ঞানীদের মনকে নাড়া দেয় প্রতিনিয়ত। উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত তারা। আমাদেরই মতাে কোনাে পৃথিবী,পৃথিবীতে থাকা গাছপালা, পশুপাখী, মায় মানুষ যদি কোথাও থাকত।তাহলে কী মজাটাই না হত? বাড়ানাে যেত বন্ধুত্বের হাত। জানা যেত তাদের ভাষা, সংস্কৃতি, আদব-কায়দা। এ নিয়ে বিজ্ঞানীদের কৌতূহল যুগ যুগ ধরে। কৌতুহলকে সম্বল করে বিজ্ঞানী, বিশেষ করে জ্যোতির্বিজ্ঞানীর দল আকাশ খুঁজে বার করতে ব্যস্ত আরেকটা পৃথিবী।Image result for earth like planet found
সম্প্রতি আকাশ খুঁজে পাওয়া গেছে এরকম একটি জগৎ যেখানে একটি নক্ষত্রকে ঘিরে সাতটি ছােট ছােট গ্রহ তার চারপাশে ঘুরছে।আমেরিকার ন্যাশনাল অ্যারােনটিকস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেসনের (NASA) স্পিঞ্জার স্পেস টেলিস্কোপ’ পৃথিবী থেকে প্রায় চল্লিশ আলােকবর্ষ দূরে আকুয়ারিশ নক্ষত্রমন্ডলে সন্ধান পেয়েছে গ্রহজগৎটির।নাম দেওয়া হয়েছে ট্রাপিস্ট-১ (Trappist-1), চিলি-র The Tran-siting Planets and Planetesimals Small Telescope-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। সাতটি প্রায় পৃথিবীর সমান আকারের গ্রহগুলির মধ্যে তিনটি গ্রহ তাদের নক্ষত্রটি থেকে এমন দূরত্বে রয়েছে যে সেগুলি প্রায় বাসযােগ্য বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদের পাথুরে গঠনে জল তরল অবস্থায় থাকবার সম্ভাবনা প্রবল।

Image result for earth like planet found
ট্রাপিস্ট-১-এর গঠন কেমন? ট্রাপিস্ট-১-এর গ্রহগুলাে আমাদের সৌরজগতের গ্রহগুলাের মত সুদূর বিস্তৃত নয়। এখানে গ্রহগুলাে খুব অল্প বিস্তারে তাদের নক্ষত্রকে ঘিরে তার চারপাশে ঘুরছে। আমাদের সূর্য থেকে বুধ গ্রহটি যে দূরত্বে রয়েছে ট্রাপিস্ট-এ নক্ষত্রটিকে ঘিরে সবগুলাে গ্রহ প্রায় ততটা দূরত্বের মধ্যে থেকে বিভিন্ন কক্ষপথে ঘুরছে।গ্রহগুলাে সেখানে এতটাই কাছাকাছি যে একটি গ্রহে দাঁড়িয়ে অন্য গ্রহে
উকি মারলে ভিনগ্রহের পৃষ্ঠতলের ছবি মালুম হবে। পৃথিবী থেকে চাঁদকে যতটা বড় দেখতে লাগে ওখানে এক গ্রহ থেকে আরেক গ্রহকে তার চেয়েও বড় দেখাবে।

Image result for trepist one
ট্রাপিস্ট-এর গ্রহগুলাের একটা দিকই সবসময় নক্ষত্রটির দিকে মুখ ‘ করে আছে। এর অর্থ হল গ্রহগুলাের একদিকে সবসময়ই দিন আরেক দিকে সবসময় রাত্রি। ঠিক আমাদের পৃথিবীর মতাে নয়, যেখানে কমবেশি বারাে ঘণ্টা দিন বারাে ঘণ্টা রাত্রি। আবহাওয়াও আমাদের এখানকার মতাে হওয়া স্বাভাবিক নয়। গ্রহগুলাের আবর্তন কাল অর্থাৎ নক্ষত্রের চারপাশে একবার ঘুরে আসতে সময় নেয় খুব কম।
গ্রহভেদে প্রায় দেড় দিন থেকে কুড়ি দিন সময় লাগে নক্ষত্রটির চারপাশে একবার ঘুরে আসতে।
যে নক্ষত্রটিকে ঘিরে ট্রাপিস্ট-১-এ গ্রহগুলাে ঘুরছে উষ্ণতার দিক থেকে সেটি কিন্তু মােটেও আমাদের সূর্যের মতাে নয়। বিজ্ঞানীদের অনুমান ওর তাপমাত্রা আমাদের সূর্যের চেয়ে অনেক অনেক কম।
আর তাপমাত্রা এতটা কম হওয়ার কারণে ওর কাছে থাকা গ্রহটির পৃষ্ঠে জল তরল অবস্থায় থাকলেও অসুবিধা নেই।

Image result for trepist oneআর ওর আকার ?সূর্যের আকারের আট শতাংশের কাছাকাছি হবে বলে আন্দাজ।
চোদ্দ বছর ধরে আকাশ পরিক্রমা করে ইনফ্রারেড টেলিস্কোপ স্পিজার ২০১৬ সালে ট্রাপিস্ট-১ কে একাদিক্রমে প্রায় পাঁচশাে ঘণ্টা ধরে পর্যবেক্ষণ করে খুঁটিনাটি তথ্য সংগ্রহ করেছে। স্পিঞ্জারের দোসর
হিসাবে হাবল স্পেস টেলিস্কোপ, কেপলার স্পেস টেলিস্কোপ ইত্যাদিকেও কাজে লাগানাে হয়েছে। হাবল স্পেস টেলিস্কোপ গ্রহগুলাের গ্যাসীয় গঠন সম্বন্ধে ধারনা নিচ্ছে। ২০১৬ সালের মে মাসে হাবল ট্রাপিস্ট-১-এর একদম ভিতরের দুটি গ্রহকে পুঙ্খানুপুঙ্খ পর্যবেক্ষণ করেও গ্রহ দুটির গ্যাসীয় গঠনের কোনাে ইঙ্গিত পায়নি। এর থেকে অনুমান করা হয় যে গ্রহগুলাের গঠন পাথুরে। তরল জল থাকাও অসম্ভব নয়। তবে যাচাইয়ের শেষ এখানেই নয়। আগামী ২০১৮ সালে NASA, জেমস্ ওয়েব স্পেস
টেলিস্কোপ-এর সাহায্যে যাচাই করে দেখবে গ্রহগুলাের রাসায়নিক গঠন।আরও সূক্ষ্ম ভাবে যাচাই করে দেখবে সেখানকার বাতাবরণ। জল, মিথেন, অক্সিজেন, ওজোন ইত্যাদি কী পরিমাণে রয়েছে সেখানে। এছাড়াও সেখানকার তাপমাত্রা, চাপ ইত্যাদি বসবাসের যােগ্য কিনা। তবেই ঠিক হবে বন্ধু গ্রহ পাওয়া গেল কিনা।Image result for earth like planet found

রতন দেবনাথ

লেখাটিকে কতগুলি ট্রফি দেবেন ?

Click on a star to rate it!

Average rating 5 / 5. Vote count: 1

No votes so far! Be the first to rate this post.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  

Leave a Reply

Next Post

সাত দিনে কেন এক সপ্তাহ?

5 (1) জ্যোতির্বিজ্ঞানের নিয়ম মেনে দিন, মাস ও বছরের সময়কাল নির্ধারিত হয়। সূর্য ও চাদের পরিক্রমণ এগুলি মেনে চলে। কিন্তু সাত দিনে কেন এক সপ্তাহ। এর পেছনে কোনও বিজ্ঞান নেই। ব্যাবিলনবাসীরা প্রথম সাত দিনে সপ্তাহ চালু করেন। এর কারণ ছিল তাদের আরাধ্য সাতজন দেবতার পুজো সপ্তাহে একদিন তারা করত। আধুনিককালের […]
error: কপি নয় সৃষ্টি করুন
%d bloggers like this: