প্রাণীর পরিযান

পরিযান বলতে আমরা বুঝি মরশুমি পাখিদের দূর দূরান্তের যাত্রা, যেমন তীব্র শত থেকে বাঁচতে পাখিরা বিস্তর পথ অতিক্রমকরে অনুকূল পরিবেশের সন্ধানে l শুধু পাখিরাই নয় প্রাণী জগতের সকলের মধ্যেই দেখা যায় পরিযান l হতে পারে তার কারণ অনুকূল পরিবেশ সন্ধান, খাদ্য,বাসস্থান-এর অন্বেষণ অথবা প্রজননের প্রয়োজন!আমরা অনেকেই ‘দ্যি বার্থ অফ এ হোয়াইট সিল’গল্পে পড়েছি সিলের জন্ম দেবার জন্য বহু দূর পথ অতিক্রম করে উপকূলের উদ্দেশ্যে যাত্রা ! পেঙ্গুইন দের ক্ষেত্রেও, এই প্রজননের হেতুতে পরিযান লক্ষ্য করা যায় l
এবার একটা সহজ উদাহরণ দেই, যা আমরা সকলেই জানি কিন্তু কখনো হয়তো সেই ভাবে ভাবা হয় না,কথায় বলে মাছে ভাতে বাঙালি,সেই বাঙালির দুটো প্রিয় মাছ ইলিশ এবং ভেটকি; তারাও কিন্তু প্রজননের জন্য সুদূর যাত্রা করে l

ইলিশ মাছ সংরক্ষণের ২ পদ্ধতি
ইলিশ হলো নদীর মাছ, কিন্তু প্রজননের পর ডিম পাড়ার জন্য গভীর সমুদ্রে যাত্রা করে ইলিশ!স্বাদু জলের মাছ হওয়া সত্বেও ইলিশের সমুদ্র যাত্রার জন্য একে বা এই জাতীয় মাছেদের ক্যাটাড্রমস মাছ বলা হয় l
অনেক মাছের ক্ষেত্রে আবার,উল্টো ঘটনাও দেখা যায় তারা সামুদ্রিক মাছ হওয়া সত্বেও ডিম পাড়ার জন্য নদীতে আসে, যেমন ভেটকি প্রজননের সুবিদার্থে চলে আসে স্বাদু জলে;এই কারণে এদের অ্যানাড্রোমস মাছ বলা হয় l
আবার কিছু মাছেদের ক্ষেত্রে স্বাদু জল থেকে নোনা জল এবং নোনা জল থেকে স্বাদু জলের উদ্দেশ্যে পরিযান পরিলক্ষিত হয়,কিন্তু এর কারণ প্রজনন নয় ! এদের এমফিড্রমাস মাছ বলে lকিছু কিছু মাছ আবার শুধু মাত্র বিভিন্ন প্রকার স্বাদু জলের মধ্যেই পরিযান করে,যাদের আমরা পটামোড্রমাস মাছ বলি l আর যারা কেবল মাত্র নোনতা জলে পরিযান সম্পন্ন করে থাকে,তাদের কে আমরা ওশানোড্রমাস মাছ বলে থাকি l
জলের তো অনেক ঘোরাঘুরি হলো,এবার একটু ডাঙায় ওঠা যাক কি বলেন !একটু কচ্ছপের কথা হোক, অলিভ রিডলে কচ্ছপ এদের প্রধান বাসস্থান বলা যায় প্রশান্ত মহাসাগর এবং ভারত মহাসাগর কিন্তু এরাও প্রজননের জন্য পরিযান করে l দীর্ঘ 1000কিলোমিটার বা তার বেশ পথ এরা অতিক্রম করে এসে ডিম পাড়ে,এ যেন কচ্ছপের মেলা! প্রতি বছরই এই মেলার মরসুম দেখে ওড়িশা। ভিতরকণিকা, রুশিকুল্যা ইত্যাদি একাধিক বেলাভূমি ছেয়ে ফেলে হাজার হাজার অলিভ রিডলে প্রজাতির কচ্ছপ। বছরের নির্দিষ্টি সময়টিতে ডিম পাড়তে সমুদ্র থেকে তীরে আসে তারা।নভেম্বর মাস থেকে আসা শুরু করে কচ্ছপ গুলি, প্রাণীগুলি ডিম পাড়ার জন্য ভিড় করে। নিজেদের মধ্যে খানিক লুকোচুরি খেলে নিয়ে, তারা ওড়িশার উপকূলে ডিম পাড়ে, প্রকৃতির সেরা এক সৃষ্টি! এক অনন্য বিস্ময়!Odisha's 'Turtle Man's' Efforts Help Rare Olive Ridley Breed - The ...
প্রায় লক্ষধিক কচ্ছপ আসে,এই উপকূলে প্রতিবার; সদ্যজাত অলিভ রিডেলের সংখ্যা হয় কয়েক হাজার।জায়গাটি জাতীয় সংরক্ষণের অধীনে তাই, অলিভ রিডলেদের সদ্যোজাত বাচ্চাদের বাঁচাতে সাড়ে তিন কিলোমিটার উপকূলবর্তী এলাকা জাল দিয়ে ঘিরে রাখা হয়। কারণ এই সময় সদ্যোজাতরা সমুদ্রের দিকে না গিয়ে প্রায়ই ডাঙার দিকে চলে আসে। ফলে তাদের প্রাণ সংশয়ের সম্ভাবনা থাকে। এই জন্যই জাল দিয়ে ঘিরে রাখা হয় উপকূল তীরবর্তী এলাকা।
রা আলোর প্রতি সংবেদশীল হয়ে থাকে। ইলেক্ট্রিক আলো এদের আকৃষ্ট করে বেশী। তাই বন দফতর থেকে এলাকাবাসীদের নির্দেশ দেওয়া হয়, রাত নটার পর থেকে যেন সব আলো বন্ধ রাখা হয় বছরের ওই নির্দিষ্ট সময়ে । যেহেতু এই প্রজাতির কচ্ছপ আর খুব বেশি সংখ্যায় বেঁচে নেই,এবং এরা যথেষ্ট সংকট পূর্ণ অবস্থানে,তাই এদের অবলুপ্তি রোধ করার জন্য একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে l তাই তাদের নির্বিঘ্নে ডিম পাড়তে দেওয়া এবং বাচ্চাদের নিরাপদ রাখার দিকে জোর দেওয়া হয় বন দফতরের তরফে যাতে করে জীব বৈচিত্র্যের ভারসাম্য যেন অক্ষত থাকে l
 

(C) সৌভিক রায়

Leave a Reply

%d bloggers like this: