আন্তর্জাতিক নদী পরিচয় পর্ব ১

আন্তর্জাতিক নদী আত্রেয়ী

আন্তর্জাতিক নদী করোতোয়া থেকে সৃষ্টি হয়েছে। দিনাজপুর জেলার জয়গঞ্জ বীরগঞ্জ কোতোয়ালি হয়ে চাঁদপুরের কাছ থেকে পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করেছে। আত্রেয়ী আপার বেসিন (বাংলাদেশ) ও মোহনপুরে (বাংলাদেশ) রাবার ড্যামের ফলে ভারতবর্ষের পশ্চিমবঙ্গের দিনাজপুর সীমানায় যখন নদীটি প্রবেশ করে।

আত্রেয়ী নদী শুকিয়ে যাওয়ার জন্য দায়ী বাংলাদেশ : মমতা - What's New Life
বাংলাদেশের ড্যামে শুকিয়ে যাচ্ছে আত্রেয়ী

(এখানে নদী না বলে শুষ্ক বালিখাত বলাই ভালো) তখন নদী জুড়ে জলের কোন দেখা পাওয়া যায় না। প্রায় এক লক্ষ মৎস্যজীবী আজ পেশাহীন হয়ে পড়েছেন। নদীর বাস্তুতন্ত্র ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। ভূগর্ভস্থ জল সংকট প্রবলভাবে মাথাচাড়া দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক নদী টাঙ্গন

আনুমানিক 164 কিলোমিটার লম্বা নদীটির মাত্র 41 কিলোমিটার ভারতে প্রবাহিত। এই নদীর আপার বেসিনে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে টাঙ্গন ড্যাম নির্মাণ করে ৮টি লো লিফট পাম্প বসিয়ে নদীর জল সম্পূর্ণটাই তুলে ফেলা হচ্ছে। ফলে মাছ, জলজ প্রাণী, জলহীন শুষ্ক নদীখাত আন্তর্জাতিক সীমানা পেরিয়ে পশ্চিমবঙ্গের দিনাজপুরে প্রবেশ করেছে।

আন্তর্জাতিক সীমান্ত নদী কপোতাক্ষ

বাংলাদেশের যশোর ও পশ্চিমবঙ্গের সীমানা নির্ধারণকারী নদী টি কার্যত বাংলাদেশের কিছু অসাধু মৎস্যজীবীদের ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে নদী জুড়ে অসংখ্য মাছের ভেড়ি, নদীটিকে কার্যত বদ্ধ জলাশয় পরিণত করেছে। সীমান্তে বাংলাদেশ সীমান্ত রক্ষীরা নদীটিকে কোনভাবেই ব্যবহার করতে দেন না। এমনকি নদীর জল ও ভারতীয় চাষীরা চাষের কাজেও ব্যবহার করতে পারেন না। তবে নদী জুড়ে কচুরিপানা য় আবদ্ধ থাকার কারণে প্রতিবছর নদী তীরবর্তী গ্রামে প্রচুর পরিমাণে ম্যালেরিয়া ও ডেঙ্গুর প্রভাবে প্রচুর ভারতীয় আক্রান্ত হচ্ছেন। জীবনদায়ী নদী এখানে কার্যত অভিশাপে পরিণত হয়েছে।

এরকম উদাহরণ আরো অনেক ই আছে। তবে সমস্যাটা হলো আন্তর্জাতিক নদী গুলির ক্ষেত্রে উদাসীন মনোভাব দুটি দেশের ক্ষেত্রেই ভবিষ্যতে বিপদের সম্ভাবনা বাড়িয়ে তুলছে। জলপ্রবাহ বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে। ভূমিরূপ গঠনে প্রক্রিয়া ব্যাহত হচ্ছে। উদ্ভিদ ও প্রাণী জগতের বৈচিত্র হ্রাস পাচ্ছে, কৃষি ব্যবস্থা ভেঙে পড়ছে।মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ এর ব্যাপক প্রভাব পড়ছে শিল্প বাণিজ্য ক্ষেত্রে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে, জীবনধারার মানের পরিবর্তন হচ্ছে ভূগর্ভস্থ জলের আকাল দেখা দিচ্ছে মাটির উর্বরতা হ্রাস পাচ্ছে, সুন্দরবন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, জলবায়ুর পরিবর্তন হচ্ছে, সর্বোপরি এক সামাজিক অস্থিরতা নেমে আসছে।

অনুপ হালদার

Leave a Reply

%d bloggers like this: