উটের দুধ ও ভবিষ্যতের খাদ্য

poribes news
0
(0)

উটের দুধ, নামটি সম্বন্ধে আমরা কিছুটা অপরিচিত হলেও এটি কিন্তু খুব একটি পরিচিত খাদ্য উপাদান শুষ্ক অঞ্চলের মানুষদের কাছে। পুষ্টি মূল্যের বিচারে এটি অন্যান্য দুধের থেকে কিছু অংশে কম নয়। এতে খুব কম পরিমানে কোলেস্টেরল, প্রােটিন, শর্করা উপস্থিত। যার ফলে যে ব্যক্তি দুগ্ধ শর্করা
(ল্যাকটোজ) সহ্য করতে পারেন না, তার ক্ষেত্রে এই দুধ খুবই উপযােগী।

এই উটের দুধে আছে

সােডিয়াম

পটাশিয়াম

দস্তা

ম্যাগনেশিয়াম

লােহা

নানা ভিটামিন

ধাতু উচ্চমাত্রায় উপস্থিত এতে।

উচ্চ পরিমাণে উদ্বায়ী ফ্যাটি অ্যাসিড (volatile fatty acids) যেমন লিনােলেইক অ্যাসিড এতে উপস্থিত এবং এছাড়াও রয়েছে পলি অ্যানস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড (PUFA) ।এই দুধে Antimicrobial জীবানু প্রতিরোধক , Antidiarrheal (পেট খারাপ জনিত রােগ প্রতিরােধ), Anti oxidative (বিজারিত যৌগ),
Anti thrombotic (রক্তজমাট প্রতিরােধী), Anti hypertensive (রক্তচাপ আধিক্য প্রতিরােধী) হিসাবে কাজ করে এবং এই দুধের আছে immuno modularate কার্যকারিতা।

ইহা Anti ulcenogenic এবং গ্যাস্ট্রিক আলসার যা প্রধানত হয় ইথানল থেকে তার বিরুদ্ধে খুবই কার্যকরী।

এছাড়াও এর আরও নানা গুণ আছে।যেমন—

জন্ডিস (Jaundice)

প্লীহার সমস্যা (Splenetic problem)

হাঁপানি (Asthma)

রক্তাল্পতা Anemia)

ডায়াবেটিস (Diabetes) প্রভৃতি সমস্যার সমাধানের জন্য উটের দুধ গ্রহণ করা যেতেই পারে।

পরীক্ষার দ্বারা এটা প্রমাণিত যে, উটের দুধ খুবই উপকারী যকৃতের সমস্যায় যে সমস্যাটা প্রধানত হয় অ্যালকোহল থেকে (Alcohol – induced live injury) কাচা উটের দুধ Type 1 diabetes এর ক্ষেত্রে খুবই উপকারী।

এই দুধে ইনসুলিনের পরিমান প্রায় 52 units insulin/liter। উটের দুধ পাকস্থলীতে Coagulant (তঞ্চন) তৈরী করেনা এবং ইনসুলিন বা ইনসুলিন এর মতাে প্রােটিনকে ধরে রাখে এবং এই প্রােটিনটি অন্ত্র থেকে শােষিত হয় এবং Type 1 diabetes রোগীর ক্ষেত্রে Glycemic Level টি বজায় রাখে।

উটের দুধের এই গুণের জন্য উত্তর-পশ্চিম ভারতের ‘রেইকা’ (Raica) সম্প্রদায়ের মধ্যে কোনাে ডায়াবেটিসের লক্ষণ দেখা যায় না, কারণ তারা উটের দুধ খায়। উটের দুধের এই বহুল গুণাগুণের জন্য এর চাহিদা ক্রমশ বর্ধনশীল।

শমীক দে

লেখাটিকে কতগুলি ট্রফি দেবেন ?

Click on a star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  

Leave a Reply

Next Post

কালাচ সাপ

0 (0) কালাচ (Common Krait) স্থানীয় নামঃ বাংলা- কালচ, ডােমনাচিতি, শিয়র চাঁদা। হিন্দি-করাত। বিজ্ঞানসম্মত নাম: Bungarus caeruleus, Family: Elapidae কালাচ সাপ কোন এলাকায় বেশী দেখা যায় ভারতবর্যের সর্বত্রই এদের পাওয়া যায়, উত্তর পূর্ব রাজ্যগুলিতে অপেক্ষাকৃত বেশী দেখতে পাওয়া যায়। সমুদ্রতল থেকে ১৭০০ মিটার উচ্চতায় এদের বিচরণ পরিলক্ষিত হয়। পশ্চিমবঙ্গের সমভূমি […]
কালাচ-সাপ
error: কপি নয় সৃষ্টি করুন
%d bloggers like this: