বেশী খাবার পর যা করবেন না

ভুড়ি-ভোজ

একটা চোঁয়া ঢেকুড় উঠল। আপনি দ্বিপ্রহরিক কিংবা রাত্রির ভারী খাবার খেয়েছেন। আপনি তৃপ্ত। এই
তৃপ্ত আমেজকে আরও কিছুক্ষণ স্থায়ী করতে চাইলেন। তাই আপনি এমন কিছু করলেন যাতে ভারী খাওয়ার পরেও আমেজটা থেকে যায়। কিন্তু আপনি বুঝতেও পারলেন না খাওয়ার
পরের এই কাজ আপনার শরীরের বিপদ ডেকে আনল।

ভুরিভােজের পরে যা করবেন না

যেমন—

১) খাবার পর ধূমপানঃ বেশীর ভাগ ধূমপায়ির নিত্যদিনের অভ্যাস ভারি খাদ্য গ্রহণের পরেই ধূমপান। এতে
তারা অতিরিক্ত আমেজ পান। কিন্তু তারা জানেন না খাওয়া দাওয়ার পর।

সিগারেট খাওয়া একসঙ্গে ১০টি সিগারেট খাওয়ার সমান। এতে ধূমপানের অপকারিতা যথা -ফুসফুস, গলা ও পেটের ক্যান্সারের সম্ভাবনা তিনগুন বাড়িয়ে দেয়।

২।খাবার পর স্নান করাঃ-বিশেষজ্ঞরা বলেন খাওয়ার পরে স্নান করা উচিত নয়। পেট ভর্তি থাকার সময় স্নান করলে তা হজম প্রক্রিয়া বাধা দেয়। ফলে আপনি চট করে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।

৩। খাবার পর নাচঃনাচ শরীরের উপকারি ব্যায়াম। কিন্তু এটি ব্যায়ামের চূড়ান্ত পর্যায়। খাওয়া দাওয়ার পরই যদিআপনি ভর্তি পেটেনাচকরতে শুরু করেন, তাহলে তা হজম পদ্ধতিকেঅতি ত্বরান্বিত করে,যা কখনওই উচিত নয়। এতে পেটের উপর চাপ পড়ে। আপনি অসুস্থ বােধ করতে পারেন।

৪)খাবার পর জোরে হাঁটাঃ-আপনার ডায়াবেটিস আছেকিংবা আপনি উচ্চ রক্ত চাপের রােগী। ডাক্তাররা আপনাকে জোরে হাঁটতে পরামর্শ দেবেন।ন্তুি খাওয়া দাওয়ার পর এটি করতে যাবেন না। শরীরে খাবারের পুষ্টি গ্রহনের ক্ষমতা এখানে বাধাপ্রাপ্ত হয়। এর ফলে মাথা ঘােরা, বমি বমি ভাব হতে পারে।

৫)খাবার পর ফল খাওয়াঃ-লাঞ্চ বা ডিনারের মতাে ভারী খাবারের পর সঙ্গে সঙ্গে ফল খাবেন না। ফল সব সময় খাবার আগে খাওয়া উচিত।

৬) খাওয়ার মাঝে বা খাবার শেষ করেই ঠান্ডা জল পানঃ– ঠান্ডা জল শরীরের পক্ষে একেবারেই ভাল নয়। ঠান্ডাজল শরীরে মেদ জমাতে সাহায্য করে। এর উপর খাওয়ার পরেই ঠান্ডাজল খেলে হজম পদ্ধতিতে বাধাপ্রাপ্ত করে।শরীরকে অসুস্থ করে।

৭) খাবার পর ঘুমানােঃ-ভারী খাবারের পর সঙ্গে সঙ্গে বিছানায় শোয়াটা স্বাস্থ্যের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর। কারণ খাওয়া দাওয়ার পর হজম হওয়ার জন্য আমাদের খাদ্যনালীতে উৎসেচক নিঃসৃত হয়। কিন্তু শুয়ে পড়লে একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে উৎসেচক সীমাবদ্ধ হয়। এবং অন্ননালীর একটি স্তরকে জ্বালাতে শুরু করে।
ফলে অ্যাসিডিটির মতাে সমস্যা দেখা দেয়।

৮) খাবার পর গরম চাঃ-অনেকে আছেন যারা খাওয়া দাওয়ার পর গরম চা খান। এটি অস্বাস্থ্যকর একটি অভ্যাস। গরম চা খাবারের প্রােটিন শুষে নেয়। এমনকি চায়ের মধ্যে যে ট্যানিন যাকে তা খাবারের আয়রনকে নষ্ট করে দেয়। ফলে শরীরে আয়রণের অভাবে অ্যানিমিয়া হতে পারে।

তাপস মজুমদার

Leave a Reply

%d bloggers like this: