কম্পিউটারের জনক কে ?

@@
5
(2)

কম্পিউটারের জনক কে ?

প্রশ্নটি বিতর্কিত । আসলে বছরের পর বছর ক্রমোন্নতির এক সুদীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে কম্পিউটার আজকের অবস্থানে এসে পৌঁছেছে। আসলে শুধু একজন নয়, অনেকের অবদানেই ঋদ্ধ এই কম্পিউটার!

সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো, সর্বপ্রথম কম্পিউটার শব্দটি দ্বারা কোনো যন্ত্রকে বোঝাতো না। বরং যারা হিসাব-নিকাশের কাজ করতো, তাদের বোঝাতো।

কম্পিউটার শব্দটির প্রথম ব্যবহার পাওয়া যায় ১৬১৩ সালে রিচার্ড ব্র্যাথওয়েইটের লিখিত একটি বইয়ে। শুরুতে আদতে এর দ্বারা কোনো যন্ত্রকেই বোঝাতো না, এটি ছিল একটি চাকরির পদবির নাম।

কম্পিউটার ছিল এমন একজন ব্যক্তি, যে কি না হিসাব-নিকাশের কাজ করতো; কখনো যন্ত্রের সাহায্যে, কখনো বা সাহায্য ছাড়াই! এই পদবী অষ্টাদশ শতাব্দীর শুরু পর্যন্ত চলতে থাকে, যার পর থেকে এর দ্বারা মানুষকে না বুঝিয়ে যন্ত্রকে বোঝানো শুরু হয়।

আধুনিক কম্পিউটারের ইতিহাস আলোচনায় কমপক্ষে ব্যাবেজের সময় থেকে বলতে হয়। যুদ্ধক্ষেত্রে দ্রুততা আর নির্ভুলতা খুবই প্রয়োজনীয়; তাই সামরিক খাতেই জটিল হিসাব-নিকাশের যন্ত্র প্রথম ব্যবহৃত হয়।

এমনই সমস্যা দূরীকরণে চার্লস ব্যাবেজ ১৮২২ সালে রয়্যাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সোসাইটিতে একটি চিঠি লিখলেন। চার্লস ব্যাবেজ ‘ডিফারেন্স ইঞ্জিন’ নামে সম্পূর্ণ নতুন এক জটিল যন্ত্রের প্রস্তাব করেন, যা বহুপদীর সমাধান করতে পারতো। এই বহুপদী সমীকরণগুলোর সাহায্যে লগারিদমীয় এবং ত্রিকোণমিতিক সমস্যার সমাধানও করা যেত।

১৮২৩ সালে ব্যাবেজ এই যন্ত্র তৈরি করা শুরু করেন। দুই দশক ধরে ২৫,০০০ যন্ত্রাংশের সমন্বয়ে তৈরি এই যন্ত্রের ওজন দাঁড়ায় ১৫ টনেরও বেশি ! কিন্তু কোনো কারণে , প্রজেক্টটি বাতিল হয়। কিন্তু ১৯৯১ সালে ঐতিহাসিকগণ ব্যাবেজের মডেল অনুযায়ী ডিফারেন্স ইঞ্জিন তৈরি করতে সক্ষম হন, যা কাজও করে!

ডিফারেন্স ইঞ্জিন তৈরির সময়ই ব্যাবেজ আরও জটিল ‘অ্যানালিটিকাল ইঞ্জিন’ তৈরির কথা চিন্তা করেন। ডিফারেন্স ইঞ্জিন ছিল একটি জেনারেল পারপাস কম্পিউটার। শুধু একটি কাজ নয়, এর দ্বারা অনেকগুলো কাজ করা যেত। এতে ডেটা প্রবেশ করানো এবং ক্রমান্বয়ে তা সম্পাদন করা যেত, এমনকি এতে মেমোরি এবং আদি প্রিন্টারও ছিল।

অ্যানালিটিকাল ইঞ্জিন ছিল সময়ের থেকে এগিয়ে, এবং একে কখনোই পুরোপুরি তৈরি করা সম্ভব হয়নি। ইতিমধ্যেই ইংরেজ গণিতবিদ অ্যাডা লাভলেস ইতিহাসে প্রথম কমান্ড লেখেন, যার জন্য তাকে পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম প্রোগ্রামার বলা হয়। তার মতে একটি নতুন, বিশাল পরিসরে ব্যবহার উপযোগী একটি শক্তিশালী ভাষা তৈরি হয়েছে, যা ভবিষ্যতে ব্যবহার করা যাবে।

অ্যানালিটিকাল ইঞ্জিন আরও অনেক প্রথম প্রজন্মের ইঞ্জিনিয়ারদের উৎসাহী করে তোলে, যারা কি না এই যন্ত্রের আরও উৎকর্ষ সাধন করেন। এ কারণেই ব্যাবেজকে ‘ফাদার অফ কম্পিউটিং’ বলা হয়।

 

কম্পিউটারের-জনক

 

প্রযুক্তির ইতিহাসের একজন অন্যতম স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব চার্লস ব্যাবেজ। ১৭৯২ সালের ২৬ ডিসেম্বর ইংল্যান্ডের লন্ডন শহরে জন্ম নেওয়া ব্যাবেজ একাধারে একজন গণিতবিদ, দার্শনিক, আবিষ্কারক ও যন্ত্রপ্রকৌশলী।

কর্মজীবনের শুরুতে ১৮২৮ সালে তিনি লুকাসিয়ান প্রফেসর হিসেবে নিযুক্ত হন এবং ১৮৩৯ সাল পর্যন্ত এ পদে আসীন ছিলেন। পরবর্তী সময়ে তিনি কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিতের অধ্যাপক হন। তিনি গবেষণার কাজে ব্যস্ত থাকতে বেশি পছন্দ করতেন।

বেঞ্জামিন ব্যাবেজ ও বেটসি প্লামলি টিপের সন্তান চার্লস ব্যাবেজ । ১৮১৪ সালের ২৫ জুলাই তিনি জর্জিয়া হোয়াইটমোরকে বিয়ে করেন।

তিনি ডিফারেন্স ইঞ্জিন ও অ্যানালিটিক্যাল ইঞ্জিন নামের দুটি যান্ত্রিক কম্পিউটার তৈরি করেন। তাঁর তৈরি অ্যানালিটিক্যাল ইঞ্জিন যান্ত্রিকভাবে গাণিতিক অপারেশন সম্পাদন করতে পারত এবং এর বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য আজকের কম্পিউটারের ডিজাইনে এখনো গুরুত্বপূর্ণ।

অর্থের অভাবে ব্যাবেজ তাঁর প্রকল্পটি সম্পন্ন করতে পারেননি। তবে ১৮২২ সালে তাঁর তৈরি ও লিখে যাওয়া বর্ণনা অনুযায়ী ডিফারেন্স ইঞ্জিনের আদলেই ১৯৯১ সালে একটি ইঞ্জিন তৈরি করা হয় এবং সেটি সঠিকভাবে কাজ করে।

বর্তমানে তাঁর উদ্ভাবিত ডিজাইনের কম্পিউটারকে কেন্দ্র করেই আরো জটিল ও আধুনিক কম্পিউটার তৈরি হচ্ছে। তাঁর সেই যান্ত্রিক কম্পিউটারের ডিজাইন এখনো লন্ডন সায়েন্স মিউজিয়ামে প্রদর্শিত হয়। ১৮৭১ সালের ১৮ অক্টোবর ৭৯ বছর বয়সে তাঁর মৃত্যু হয়।
তাঁকে শ্রদ্ধা জানাই। 🙏

 

@ পঞ্চানন মণ্ডল পঞ্চানন মন্ডল

লেখাটিকে কতগুলি ট্রফি দেবেন ?

Click on a star to rate it!

Average rating 5 / 5. Vote count: 2

No votes so far! Be the first to rate this post.

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •   
  •  

Leave a Reply

Next Post

দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম মহিলা ডাক্তার কাদম্বিনী গাঙ্গুলী

5 (2) কাদম্বিনী গাঙ্গুলী। ঊনবিংশ, বিংশ এমন কি এই একবিংশ শতকের নিরিখে একজন মহীয়সী নারী।যেযুগে নারীরা ছিল সমাজে চরমভাবে অবহেলিত, তাদের প্রাথমিক শিক্ষালাভের পথও যেখানে ছিল দিবাস্বপ্ন, সেখানে সেই একই যুগের একই সমাজে থেকে, জীবনে কিভাবে তিনি সফলতার সর্বোচ্চ শিখরে উঠলেন, অবলীলায় সামাজিক বিপত্তির সব বন্ধুর পথ পেরিয়ে অগ্রসর হলেন […]
kadambini-ganguly
error: কপি নয় সৃষ্টি করুন
%d bloggers like this: